@ দুঃষ্পন্ন @


রবিন ঢাকার একটি সুনামধন্য কলেজে অনার্স ২য় বর্ষে পড়ে । অন্যান্য ছেলেদের মত সেও বড় হওয়ার সপ্নে ঢাকায় পড়তে এসেছে ।কিন্তু তার একটা সমস্যা আছে(তার দৃষ্টিতে) সে সুন্দর ছেলেদের প্রতি খুব আকর্ষন ফিল করে ।তার এ আকর্ষন হতে পারে শারিরীক কিমবা মানসিক চাহিদা পুরনের জন্য । যদিও তার বন্ধু অনেক এতদ সত্তেও সে কারো কাছে এ বিষয়ে কিছু বলে নি ।ঢাকা আসার দুই বছর পর সে ফেসবুকে তার আইডি খুলে ।সেখানে সে তার দুরের,কাছের,চেনা,অচেনা অনেকের সাথে চ্যাট করে ।এমনি করে চলছিল হঠাত্‍ একদিন সে তার ওয়ালে ভিন্নধর্মী কিছু ছবি দেখতে পায় এবং এরপর কি হতে পারে পাঠক আপনারা তা জানেন,ফেক আইডি খোলা ,গে ওয়াল্ডে প্রবেশ .এখানে সে লুকিয়ে অনেকের সাথেই চ্যাট করে ,দেখাও করে দুএকজনের সাথে ,ফলে বেশ ভাল ই চলছিল তার দিনগুলি ,এভাবেই একদিন সে তার WALL এ এক বন্ধুর advertisement”need a gf, mobile no”., দেখতে পায় সে একটু অবাক হয় এই ভেবে যে এই Group এ GF তথা Girl friend এর খোজ ,তাই সে দুষ্টামি করে একটা কমেন্ট করে গে group এ আবার GF এর খোজ হাস্যকর ,পরের দিন reply দেখতে পায় GF=GAY FRIEND. ও মনে মনে হাসে মানুষের কত ঢং এই ভেবে ।পরদিন সে তার INBOX এ একটা মেসেজ দেখতে পায় Wanna met me imon frm dhaka,m.b number. রবিন মোবাইল নম্বর পেয়ে একটা কল দেয় সঙ্গে সঙ্গে রিসিভ ।অতপর দুজনের মধ্যে প্রায় 20 মিনিট কথা হয় অতপর সিদ্ধান্ত হয় তারা সকাল ১০ টায় বোটানিকাল এ দেখা করবে ,যেই কথা সেই কাজ ওরা সেখানে ৩ ঘন্টা যাবত্‍ একে অপরের বিষয়ে আলাপ করে ,এভাবেই ভাললাগার শুরু তারপর প্রতিদিন ফোন আলাপ নিয়মিত দেখা সাক্ষাত্‍ ,বাসায় আসা ও রবিনের বাসায় আসত ,ও পরিচয় দিয়েছিল যে এখানে University admission coching এ ভর্তি হয়েছে,চাচার বাসায় থাকে ,ওর চাচার বাসায় যেতে চাইলে বলত সমস্যা আছে ,ও ৪ থেকে পাচ বার রবিনের বাসাতে আসছে এমনকি রাতে থাকছেও .এভাবেই চলছিল দিনগুলি একদিন ওরবিনকে প্রস্তাব দেয় ওর BF হওয়ার ততদিনে ও তো রবিনের মন জয় করে ফেলেছে তাই সে সানন্দে সেটা গ্রহন করে ,আরো বলে রাখা ভাল যে রবিনের রুমে ওরা দুইজন থাকত,ওর রুমমেট ছিল ওর জুনিয়র তাই ওর কাছে রবিনের Position টাও তেমন ছিল তারপর ও ওরা একি সাথে এক বছর ধরে থাকছে তাই understanding টা কেমন পাঠক অবশ্য ই তা বুঝতে পারছেন ,ওর রুমমেট অবশ্য রুমে থাকার চাইতে বাড়িতেই বেশি কাটাইত তাই অনেক সময় দীর্ঘদিন রবিনের একাই থাকতে হত ।যা হোক একদিন সকালে হঠাত্‍ ইমনের ফোন ,কি ব্যাপার কি অবস্থা ,ওকে খুব দুঃখ ভরাক্রান্ত মনে হচ্ছিলো .রবিন জিগায়তেই ও বলল বন্ধু আমি খুব বিপদে আছি তোমার কাছে কি আজ থাকতে পারব ? যদিও রবিনের রুমমেট ছিল তার পর ও ওর বিপদের কথা শুনে ও আর কথা বাড়াইনি চলে আসতে বলেছিল ওকে ,ও আসল ৩ টার দিকে ,এবার ফ্রেস হবার পালা ও নাকি বাথট্যাব আর শাওয়ার ছাড়া কোনদিন গোসল করে নাই ,তাই টয়লেটে শাওয়ার নষ্ট থাকায় রবিন একটু লজ্জা পেল ,ইমন বলল আমি গোসল করতে পারছি না তুমি করাইয়ে দাও ,এই কথা শুনে রবিনের সেকি হাসি ,ভাগ্য ভাল ওই দিন মেসে কেও ছিল না তাই ও তার BF কে ছোট বাচ্চার মত গোসল করালো ।তারপর দুজন Lunch শেরে ঘুরতে বাহির হল ,দুজন একজন আরেক জনের হাতে হাত রেখে ঘুরছিল ,রবিনের মনে হচ্ছিল এতদিনে তার মনের আশা পূর্ন হয়েছে ।এভাবে তারা অনেক রাত পর্যন্ত ঘুরেছিল ।অতপর ডিনার করে স্বর্গীয় সুধা পান করার সময় এল ,রুমমেট অন্য রুমে ঘুমাতে গেল ফলে কোন সমস্যা থাকল না ।ওরা সারা রাত একে অপরকে আলিঙ্গন করে মাতাল খেলায় মেতে থাকল ।অবশেষে দুজনে ঘুমিয়ে গেল ।পরবর্তি দিন সকাল ১১ টায় ঘুম ভাঙল রবিনের দেখল ইমন ওর ঠোটের কাছে ঠোট নিয়ে অপেক্ষা করছে তাই ঘুম ভেঙে আর এক দফা অমৃত পান কর্মসূচী চলল ।অতপর উঠে ফ্রেস হল নাস্তা করল ।নাস্তা শেষে রবিনের রুমমেট আসল ,ওর বাইরে বিশেষ কাজ থাকায় ও ইমনকে বলল তুমি আমার রুমমেটের সাথে গল্প কর আমি ১ ঘন্টার জন্য একটু বাইরে যাইতেছি ,ও মাথা নাড়ল ।অতপর রবিন বাইরে গেল ।হঠাত্‍ ২০ মিনিট না যেতেই ইমনের ফোন জানু তুমি কই রবিন বলল এইতো আমি কোন সমস্যা .ওপাশ থেকে ফোন কেটে দেওয়া হল ,এর কিছুক্ষন পরেই রুমমেটের ফোন ,কি ব্যাপার কি ও পাশ থেকে কাদো কাদো গলায় তাকে জানালো যে ভাইয়া আমি আপনার বন্ধুকে রেখে কিছু সময়ের জন্য বাইরে গেছিলাম এসে দেখি আপনার বন্ধুও নেই আমার ল্যাপটপ ও নেই ।একথা শোনার পর রবিনের তো কথা বন্ধ হয়ে গেল ওর মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ল ,ও ছুটে আসল বাসাতে ,ইমনের ফোনে অনেক বার রিং দেওয়ার চেষ্টা করল কিন্তু ফোন বন্ধ ছিল ।তারপর ও রবিন গাবতলী গেল ,সায়েদাবাদ গেল ,তার সকল বন্ধুদের কাছে বলল কিন্তু ইমন নিখোজ ই থেকে গেল ।যে রবিন সকাল ১১ টায় ঘুম থেকে উঠত সে এখন খুব ভোরেই উঠে চলে যায় কাজে ,যে পড়াশোনায় ছিল নিয়মিত তার আজ পড়ালেখার সময় নেই ।তাকে তার রুমমেটের Hp core i 7 laptop কিনে দিতে হবে ।সে বাসাতেও কিছু বলতে পারে না তার আব্বুর ভয়ে ,প্রশ্নের ভয়ে বন্ধুদেরকে কিছু বলতে পারে না ।তার জীবন যুদ্ধে সে খুব একা বড় ই একা ।উক্ত ঘটনা রবিনের জীবনে এক ভয়ানক দুঃষ্পন্ন হয়ে আজো তাকে কাদিয়ে চলেছে । (সন্মানিত পাঠক আমি মোবাইল থেকে লেখা টা পোষ্ট করেছি তাই মাঝে মাঝে একটু ইংরেজি নিয়ে এসেছি দয়া করে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টি দিয়ে দেখবেন )

2 thoughts on “@ দুঃষ্পন্ন @

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s