ভাইয়ার বন্ধুর সাথে গে সেক্স/ সমকামিতার খেলা


আমি মুন । বয়স ২৭ । চট্টগ্রাম থাকি ।
সেদিন ছিল ২০০৭ সালের ১৩ মার্চ ।
আমাদের বাসায় দুপুর বেলা একটা প্রোগ্রাম ছিল ।
যার কারণে আমাদের বাড়িতে সেদিন প্রচুর আত্মীয় স্বজন আসে । যারা কাছের ছিল তারা দুপুরের খাবার শেষে চলে যায় । কিন্তু যাদের বাড়ি অনেক দূরে তারা সেদিন কার মত আমাদের বাড়িতে থেকে যায় ।
যাই হোক ।
রাতের বেলা সিদ্ধান্ত হয় আমার সাথে আমার বড় ভাইয়ার এক বন্ধু থাকবে । ভাইয়ার বন্ধুর নাম বিপুল । বিপুল ভাইয়ার বয়স হয়ত ৩৮-৩৯ হবে । কিন্তু তার চেহারায় কেমন একটা মায়া মায়া ভাব আছে । ভাইয়া বিবাহিত ।

রাত তখন ১১ টা বাজে । আমি খাওয়া দাওয়া শেষ করে ঘুমোতে আসলাম । বিপুল ভাইয়াও শুয়ে পড়ল ।
আমি সেদিন খুব ক্লান্ত । তাই শুয়ার সাথে সাথেই আমার চোখ মুদে আসল ।
মাঝরাতে আচমকা আমার ঘুম ভেঙ্গে দেখি বিপুল ভাই আমার পুরুষাঙ্গ মুঠ করে ধরে আছে ।
আর অন্য হাতে আমাকে জড়িয়ে ধরে আছে ।
আমার কি হল ? জানি না ।
আমিও কখন যে উনাকে আঁকড়ে ধরলাম!
ভালো লাগছিলো ।
আমি অপেক্ষা করছিলাম উনি কি করেন সেটা দেখার জন্য ।
বিপুল ভাই আস্তে আস্তে আমার পেনিস ধরে নাড়তে লাগলো ।
আমি ভেতরে ভেতরে হট হয়ে যাচ্ছিলাম ।
এমনিতেই আমার পুরুষাঙ্গ একটু বড়সড় । ভাইয়ার হাতের স্পর্শে সেটা ফুলে ফেঁপে উঠলো ।

আমি আর নিজেকে কন্ট্রোল করতে পারলাম না । মনে মনে সিদ্ধান্ত নিলাম যা হয় হোক । আজ একটা কিছু করবই ।
মনের মধ্যে একটা ভয়ও কাজ করছিল উনি যদি আমাকে fuck করতে চান ?
তাহলেত আমার খবর আসে ! আমি এর আগে কারো সাথে সেক্স করি নি । তাই ভয়টা একটু বেশিই ।
বুঝতে পারলাম বিপুল ভাইয়া পাকা খেলোয়াড় । কারণ এর মাঝেই উনি আমার প্যান্ট খুলে আমার পেনিস চুষতে শুরু করেছেন ।
আমিতো অবাক ! এখন কি করব !
তবে এর মাঝেই আমি প্রচুর থ্রি এক্স দেখে হাত মারতাম। তাই সেখান থেকে যা শিখেছি তাই কাজে লাগালাম । কি আর করব ?
আমি বিপুল ভাইয়ার মুখে আমার পেনিস হালকা হালকা ঠেসে দিতে লাগলাম । পুরোটা তার মুখে যাচ্ছে না । বুঝতে পারছিলাম ।
বিপুল ভাইয়ার মুখের লালায় আমার পেনিস পুরাই গোসল করে ফেলেছে ।
বিশেষ করে পেনিসের মাথায় উনি যখন জিব ছুঁয়ে ছুঁয়ে আদর দিচ্ছিলেন আমার মাথা উলট পালট হয়ে যাচ্ছিল ।
সেক্স এর মাঝে এতো আনন্দ এতো উত্তেজনা আগে জানতাম না ।
বিপুল ভাই আমার অণ্ডকোষের নীচে জিব দিয়ে সুরসুরি দেন ।
আমি এবার কোমর বেঁকিয়ে দিই আবেশের চোটে ।
আমি আর পারি না ।
বিপুল ভাইয়াকে এক ঝটকায় বিছানায় ফেলে দিয়ে হিংস্র বাঘের মত উনার লুঙ্গি খুলে ছুড়ে ফেলি ।
ভাইয়ার নিপল গুলো জিব আর ঠোঁট দিয়ে চুষতে থাকি ।

বিপুল ভাই বলল, এই আস্তে চুস । ছিরে ফেলবে তো !
আমার মাথায় তখন ওসব নেই ।
উনাকে জড়িয়ে ধরে সমানে উনার নিপল চুসেই যাচ্ছি ।
উনি এবার মুখ দিয়ে উহ আহ শব্দ করতে লাগলেন ।
এতদিন এসব শব্দ শুধু ভিডিও তে দেখেছি । আজ সরাসরি কারো মুখ থেকে শুনার পর আমার সেক্স কয়েকগুন বেড়ে গেল ।
অবশ্য যারা সেক্স করেছেন তারা সবাই জানেন এসব শীৎকার ধ্বনি সেক্স কে হাজারগুন বাড়িয়ে দেয় ।
বিপুল ভাই আমাকে ঠোঁটে কিস করতে চাইলেন ।
আমি করলাম না প্রথমে । কেমন একটা দ্বিধা কাজ করছিল । এরপর উত্তেজনার বশে কিস করা স্টার্ট করলাম ।
মন্দ লাগছিল না ! একহাতে তার পাছার মাংস টিপতে লাগলাম । খুব জোরে জোরে টিপছিলাম । তাই বিপুল ভাই একটু ব্যথা পেয়ে বললেন, আস্তে আস্তে টিপ ।
আমি হাসলাম । মনে মনে বললাম, আমাকেত চেন নাই । আজ তোমার খবর করব।
বিপুল ভাই দেখি আমার পেনিস ধরে টানাটানি করছেন । চটকাচ্ছেন ।
উনি পারলে আমার পেনিস ছিরে তার হাতে নিয়ে নেবেন । এই অবস্থা !
বিপুল ভাই এক পাশে কাত হয়ে শুয়ে তার ডান পা উপরে তুলে ধরলেন ডান হাত দিয়ে ।
আমি বললাম, কি করব ?
ভাইয়া কিছু না বলে তার মুখ থেকে থুথু এনে আমার পেনিস আর তার পাছায় লাগিয়ে দিল ।
তারপর পেনিস সেট করে বলল, ধাক্কা দাও । ঢুকাও ।
আমি একটা ঠেলা দিলাম । পেনিসের মাথাটা ঢুকল । কিন্তু বাকিটা ঢুকল না ।
আমি জিজ্ঞেস করলাম , ভাইয়া । জোরে দিব ।
বিপুল ভাই বলল, কথা না বলে কাজ কর ।

আমিতো পুরাই ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে গেলাম । হালকা ভয়ও পেলাম ।
বিপুল ভাই বুঝতে পারলেন ।
আমাকে চিত করে শুয়ে দিয়ে তিনি তার দুই পা আমার কোমরের দুই পাশে দিয়ে বসলেন ।
পেনিসটা হাতে ধরে তার পাছায় সেট করে একবারে বসে পড়লেন ।
আমি অবাক হয়ে তার কাজকারবার দেখছি কখন যে পেনিস পুরোটা উনার ভেতরে ঢুকে গেছে বুঝতে পারি নি ।
উনি কিছুটা ব্যথা পেলেও উঠা নামা করতে ভুল লেন না ।
আমি বুঝলাম উনি মজা পাইসেন ।
তাই এবার আমিও তাল মেলাতে নিচ থেকে ঠেলা দিতে লাগলাম ।
ইচ্ছামত করছিলাম উনাকে ।
বিপুল ভাই হাস ফাস করছেন । উনার পেনিস আমার পেটের উপর বাড়ি খেতে লাগলো ।
কি অদ্ভুত দৃশ্য !
আমি শুধু দেখছি কি করে অবলীলায় আমার পেনিস উনার ভেতরে যাচ্ছে আর আসছে ।
আমার বীর্য বের হবার আগেই উনার বীর্য বের হয়ে আমার বুকে পেটে পড়ল ।
এসব দেখে আমি আর থাকতে পারলাম না ।
উনার ভেতরেই বীর্যর শেষ বিন্দুটাও ফেলে দিলাম ।
এবার উনি আমার বুকে শুয়ে আমার গলায় বুকে আদর দিতে লাগলেন ।
সে যে কি ভালো লাগছিলো !
এরপর থেকে উনি মাঝে মাঝে আমাদের বাড়িতে আসতেন । সেক্স করতেন । উনার সাথে সেক্স করে আমি অনেক মজা পাই । এখনও নিয়মিত আমাদের সেক্স হয় ।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s