নিশিবালক এবং রমনা পার্ক


রমনা পার্ক এর নাম শুনে নি এমন মানুষ বোধহয় বাংলাদেশে খুব কমই আছে ।
শাহবাগের কাছাকাছি অবস্থিত এই পার্কটি নানান কারণে বিখ্যাত ।
তবে এই পার্কটি অন্য একটি কারণেও বিখ্যাত । এটিই সেই পার্ক যেখানে বাংলাদেশের সমকামিদের সবচেয়ে বেশি জনসমাগম হয় ।
একটা সময় ছিল যখন রমনা পার্ক বলতে অনেকেই বুঝত রাতের বেলায় সেখানে মহিলা পতিতারা থাকে । সেখানে সেক্স হয় ।
মজার কথা হচ্ছে এখন সেখানে মহিলা পতিতার দেখা পাওয়া যায় খুব কম ।
সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে সেখানে বিভিন্ন বয়সের সমকামিদের ভিড় বাড়তে থাকে ।
রাত যত বাড়ে নিশিবালকদের আনাগোনাও তত বাড়ে ।

শুক্রবার হল রমনা পার্কে সমকামিদের হাট বার । সেদিন বেলা ৫ টা থেকেই গেরা একে একে জমায়েত হয় সেখানে ।
বিশেষ করে কাকরাইল মসজিদের ঠিক পেছনে রমনা পার্কের ভেতরে যে বিশাল মাঠ আছে সেখানেই ভিড়টা প্রথম শুরু হয় ।
বিকেল থেকেই সেখানে বিভিন্ন মেয়েলি সমকামি পুরুষরা নাচ গান শুরু করে ।
খেয়াল করলে দেখা যায় অনেক পুরুষরা ওখানে গোল হয়ে দাঁড়িয়ে সেখানে এসব গান শুনে, নাচ দেখে । অবশ্য গান শোনা আর নাচ দেখা তাদের প্রধান উদ্দেশ্য নয় ।
ওদের প্রধান উদ্দেশ্য থাকে ভিড়ের মাঝে একজন আরেকজনের পেনিস স্পর্শ করা ।
আপনি যদি পার্কে নতুন হন । তাহলে ওই ভিড়ের মাঝে কমপক্ষে ৫ মিনিট দাঁড়ান । একটু পরেই টের পাবেন কেউ না কেউ আপনার দিকে মাতাল চোখে তাকাচ্ছে । অথবা আপনার পেনিসের উপর হাত বুলাচ্ছে ।
এত গেল বিকেলের কথা । সন্ধ্যা নামার পর গে দের জ্বালায় আপনি ওই এলাকায় হাঁটতে পারবেন না ।
বিশেষ করে বকুল তলা, লেকের পাড় ঘেঁষা পথ, ভি আই পি গেইট এর সাথের পথ প্রতেকটা জায়গায় গেরা দাঁড়িয়ে থাকে । অনেকে বেঞ্চে বসে থাকে । অনেক গেরা একসাথে দাঁড়িয়ে হাসাহাসি করে । টিজ করে ।

গে চেনার উপায়ঃ
__________________
মেয়েলি কিছু সমকামি পুরুষ আছে যাদের চেনার জন্য অন্য কিছু দরকার হয় না । এরা যখন আপনার সামনে দিয়ে যাবে তাদের নিতম্ব হালকা দুলবে । ঠিক মেয়েদের মত । এরা হাঁটবেও মেয়েদের মত । অনেকেই গান গাবে,অঙ্গে আমার আগুন জ্বলে। কিংবা এলোমেলো বাতাসে উড়িয়েছি শাড়ির আঁচল । আপনি এসব গান শুনলেই নিশ্চিত বুঝবেন যে ওই ছেলেটি গে এবং বোটম । টপ এবং ভারসেটাইল চেনাটা একটু কঠিন । বেশিরভাগ টপ তাদের পেনিস প্যান্ট এর উপর দিয়ে ঘষে দৃষ্টি আকর্ষণ করে ।
আপনি যদি কোন বেঞ্চে বসেন । যেখানে আলো আধারি পরিবেশ । নিশ্চিত একটু পরেই আপনার পাশে কেউ একজন বসবে । আপনার কাছে জিজ্ঞেস করবে, ভাইয়া । কয়টা বাজে কিংবা ভাইয়া আপনি কেমন আছেন । এরপর আস্তে আস্তে আপনার কাছাকাছি এসে সরাসরি পেনিসে হাত দিবে অনেকেই । অনেকে শরিরে হাত বুলাবে । আপনার চেহারা, হাসি সৌন্দর্যের প্রশংসা করবে ।
রমনা পার্কে সবাই যে সমকামি সেটা ঠিক না । সমকামি চিনতে হলে আপনাকে কোন পুরুষের চোখের দিকে তাকাতে হবে । কেউ যদি সমকামি হয় তবে সে বার বার আপনার দিকে তাকাবে । আপনার মনোযোগ আকর্ষণের চেষ্টা করবে । অনেক সমকামি নিজেদের পেনিস খুলেও দেখাতে পারে আপনার দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য । অনেকে ইচ্ছে করে দাঁড়িয়ে পেনিস নেড়ে নেড়ে পেশাব করে ।
আবার অনেকে দাঁড়িয়ে পেনিস বের করে দুলাবে । আবার অনেক সমকামি তার জিব উল্টে সেক্স প্রদর্শন করবে । আবার অনেকেই প্যান্ট এর উপর দিয়ে তার পেনিস ঘষবে ।
এখানে যারা ব্যায়াম বা জগিং করতে আসেন রাতের বেলা তাদের মাঝেও অনেক সমকামি আছেন । তারা জগিং বা ব্যায়াম শেষ করার পর সেক্স করে বের হন । অনেকটা এক ঢিলে দুই পাখি মারার মত । জগিংও হয় সেক্সও হয় ।
এখানে ৩ ধরনের গেরা যায় ।
১। নিম্ন গরীব শ্রেণীর
২। মধ্যবিত্ত
৩। উচ্চবিত্ত

যারা একবারে নিম্ন শ্রেণীর তারা লুঙ্গি পরে যায় । তবে আজকাল পোশাক দেখে ক্লাস বুঝা যায় না । এরা সবার সাথে সেক্স করে । এদের মাঝে অনেকেই গড়ে ৫-৮ জনের পেনিস চুষে দেয় প্রতিদিন । বেশি রাত হলে অর্থাৎ রাত ১০ টার পর ওরা পেছন দিকেও নেয় ।

মধ্যবিত্ত পরিবারের যারা যায় তারা সেখানে পার্টনার খুঁজতে যায় । এদের মাঝে অনেকেই সাক করে । কিন্তু এনাল করার সাহস পায় না । অনেক সমকামি শুধুমাত্র দেখতেও যায় । কারণ একমাত্র রমনা পার্কেই আপনি বিনা পয়সায় লাইভ গে সেক্স দেখতে পারেন ।

উচ্চবিত্ত শ্রেণীর যারা তারা পার্টনার পছন্দ করার সাথে সাথে অনেকসময় সাথে করে বাসায় কিংবা গাড়িতে নিয়ে সেক্স করে ।

রমনা পার্কে দুজনের মাঝে সেক্স যেমন হয় তেমনি গ্রুপ সেক্সও হয় । এখানে রিকশাওয়ালা থেকে শুরু করে অনেক নামি দামি মডেলদেরও দেখতে পাওয়া যায় ।
এখানে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, ব্যাংকার, টিচার , ছাত্র, ব্যবসায়ি, সেলসমেন সহ সব পেশার সমকামি পুরুষরা যায় । আপনার ভাগ্য ভালো হলে আপনি লাইভ গে সেক্স দেখতে পারেন ।

আপনি যদি কখনও রাতে রমনা পার্কে যান তাহলে যেসব বিষয় খেয়াল রাখবেন
_________________________________________________________________________

@ সাথে দামি ঘড়ি , মোবাইল কিংবা বেশি টাকা পয়সা নিবেন না ।
@ কালো বা একটু অনুজ্জ্বল রঙের কাপড় পরে যাবেন । কারণ রাতের অন্ধকারে কালো রঙ এর পোশাক ভালো । দূর থেকে আপনাকে কেউ চিনতে পারবে না ।
@ অনেকে ইচ্ছে করলে ক্যাপ পরে যেতে পারেন ।
@ পায়ে কেডস বা কনভারস থাকলে ভালো হয় । কারণ তাহলে অনেকেই মনে করবে আপনি জগিং বা ব্যায়াম করতে এসেছেন । অফিশিয়াল ড্রেসে যাবেন না ।
@ ওখানে গার্ড আছে । তাই একটু সচেতন থাকাই ভালো । কেননা ধরা খেলে গার্ডরা টাকা নেয়ার জন্য চিৎকার চেঁচামেচি করে । অনেক ক্ষেতে গার্ডরা বেতের বাড়িও দেয় । ভাগ্য খারাপ হলে সেটাও খেতে পারেন ।
@ খুব বেশি মেয়েলি ছেলেদের সাথে কথা না বলাই ভালো । কারণ বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ওদের দল থাকে ৪-৫ জনের ।
@ কারো সাথে সেক্স অর্থাৎ সাকিং বা ধরাধরি করার আগে কিছুক্ষন কথা বলে আন্দাজ করে নিন সে কেমন । যারা খুব বেশি তাড়াহুড়া করবে সেক্স করার জন্য তাদের থেকে দূরে থাকুন । কারণ ওরা প্রতিদিন গড়ে ৪-৫জনের সাথে সেক্স করে ।
যার ফলে ওদের মাধ্যমে রোগ ছড়াতে পারে বেশি ।
@ পোশাক দেখে ভুলে যাবেন না । মনে রাখবেন এখানে যারা বেশি সাজ গোজ করে আসে তাদের অনেকেই উঠতি মডেল যাদের হর হামেশা নানান জনের সাথে শুতে হয় । বেশিরভাগ গে রাই সেলস মেন ।
@ এখানে আসা অনেক গে টাকার জন্য সেক্স করে । তাদের থেকে সাবধান ।
@ কারো কাছে নিজের সত্যি নাম পরিচয় পেশা না বলাটাই ভাল ।
@ যারা নতুন তারা রাত ৯ টার পর না থাকাটাই ভালো ।
@ কাওকে মোবাইল নম্বর দেয়ার আগে দ্বিতীয়বার ভালো করে ভেবে নিন ।
@ কিছু কিছু জায়গা আছে রেড জোন । যেমন – বকুল তলা, লেক এর পাড় ঘেঁষা রাস্তা । এসব জায়গায় না দাঁড়ানোটাই ভালো । কেননা ঐসব জায়গা থেকে গার্ডরা ধরে নিয়ে যায় বেশি ।
@ কোথায় দাঁড়ানোর চাইতে বসে থাকা কিংবা হালকা হাঁটা চলা করা বুদ্ধিমানের কাজ ।
@ লুঙ্গি পরা কারো সাথে সেক্স না করাই ভালো । অবশ্য কিছু কিছু স্মার্ট ছেলেরা বড় ডিক দেখলে স্থির থাকতে পারে না । তখন তারা কে লুঙ্গি পরা আর কে প্যান্ট পরা এসব মাথায় রাখে না । আপনাকে সবসময় মনে রাখতে হবে আপনি যার সাথে কথা বলছেন সে যেন আপনার স্ট্যাটাস এর সাথে মানানসই হয় ।

সবশেষে একটা কথাই বলব । পার্কে সেক্স করাটা অনেক রিস্ক । এটা আমি সাপোর্ট করি না । কেননা যেকোনো মুহূর্তে আপনি ধরা খেয়ে যেতে পারেন । তার চাইতে বড় কথা পার্কে সেক্স করার ক্ষেত্রে বেশিরভাগ গেরাই কনডম ব্যবহার করে না । যা খুবই বিপদজ্জনক । একসাথে অনেকের পেনিস চুষার কারণে রোগ সংক্রমনের হারটাও বেশি । তাই সবাইকে বলব কোন কিছু করার আগে নিজে যাচাই বাছাই করে বুঝে শুনে করবেন ।

11 thoughts on “নিশিবালক এবং রমনা পার্ক

  1. curisity niye amio giyechilam…….but erkm nirdisto kono info jantam na….info ta peye valo holo kina jani na….but voyta berei gelo…..vabsi ekbar frnd ke niyei free gay sex live upovog korte jabo….:P lol

  2. ami singapore thaki, ekhane eirokom onek gay sex place ache,but bangladeshe eirokom place ache,age jantam na, thanks 4 information.

  3. ekbar giyesilam .eta porei.tease er sikaro hoyesi but live gay sex dekhi ni.teasing er vasa mone porle ekhono ga sure othe

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s