এক অদ্ভুত সমপ্রেমের গল্প

13

…………………………………………………
আমরা একে অপরকে কতটা ভালবাসি সেটা জানি না । তবে একে অপরকে কখনোই “ভালবাসি” এই কথাটা বলিনি । আর কখনও সেটা বলা হবে কিনা জানি না । ৫ বছর হল ওকে আমি চিনি । প্রতিদিনই আমরা একে অপরকে “শুভ সকাল” বলে আমাদের দিন শুরু করি । রাতের বেলাতেও ঘুমাতে যাওয়ার আগেও একে অপরকে “শুভ রাত্রি” বলে ঘুমাতে যাই ।
একদিন দেখা না করলে দুজনেরই দম বন্ধ হয়ে আসে ।
আজকাল তোমার কথা ভেবে দূরে কোথাও বেড়াতে যাই না । তোমাকে না দেখে থাকতে পারব না । তাই ।
আমাদের প্রথম দেখা হয় পার্কে ।
সেদিন পার্কে ঘুরতে যাই আমি । হাঁটছিলাম আনমনে ।
”Do u like Gay sex?”- এটাই ছিল তোমার কথা বলার শুরু । প্রথম দিনেই বুঝতে পেরেছিলাম তুমি যথেষ্ট স্পষ্টবাদী সাধারন আর সাহসী ।
কিন্তু ঐদিন পার্কে তোমাকে ক্ষণিকের অতিথি ছাড়া আর কিছুই ভাবিনি আমি ।
তাই আমিও সহজ কথায় বলেছিলাম,’yes i like gaysex’
পরিচয় এর ৩ দিন পর তুমি দেশের বাইরে চলে গেলে । অফিশিয়াল ট্যুরে ।
যাওয়ার আগের দিন তোমার বাসায় তুমি চা খাওয়ার নিমন্ত্রন দিয়েছিলে ।
আমিও গেলাম । পরিচিত হলাম তোমার পরিবারের সবার সাথে । চা খেলাম ।
এরপরের ঘটনা যথেষ্ট অদ্ভুত ।
তুমি এয়ারপোর্ট যাবার পথে তোমার সেল ফোনটা হারিয়ে ফেললে ।
আমি বার বার তোমাকে কল দিয়েও পাচ্ছিলাম না ।

আমি ভাবলাম । আসলে গে রা এমনই হয় ।
out of side out of mind.
কিন্তু আমার সব ধারনা ভুল হয়ে গেল । অবাক করা ব্যপার তুমি বিদেশে পৌঁছেই আমাকে ফোন দিলে ।
তুমি অনেক কষ্ট করে আমার ফোন নম্বর জোগাড় করেছিলে সেটা শুনে আমি এতটাই আনন্দ পেয়েছিলাম যে চোখে পানি চলে এসেছিল ।
এরপর থেকেই তোমাকে একটু একটু করে মনের ঘরে ঠাই দিতে শুরু করলাম ।
যদিও এর আগে আমি দুজনের সাথে সেক্স করেছিলাম ।
তারপরও এই প্রথম কারো প্রতি সমপ্রেম অনুভব করলাম ।
কাজের ফাঁকে যখনই সময় পেতে তখনই আমাকে ফোন করতে তুমি ।
আমিও পাগলের মত তোমার ফোনের আশায় থাকতাম ।

তখন আমি সদ্য ইউনিভার্সিটিতে এডমিশন নিয়েছি ।
সারদিন তাই অফুরন্ত সময় ।
তোমার জন্য অপেক্ষা করতে ভালো লাগত ভীষণ ।
একদিন তুমি ফোন করে বললে, আজ রাতে দেখা করবে ?
আমি বললাম, হুম । আসব ।
দেখা হওয়ার পর তুমি আমাকে তোমার বাসায় নিয়ে গেলে ।
আমিও তোমার সাথে সাথে গেলাম মন্ত্রমুগ্ধের মত ।
বাসায় গিয়ে আরও অবাক হলাম । বাসায় কেউ নেই ।
পুরো বাসা ফাঁকা ।
তুমি আমাকে বললে, আজ আমাদের সব প্রতীক্ষার অবসান হবে ।
আজ আমরা একে অন্যকে আদর দেব ।
আমার বুকের ভেতর ঝড় উঠল ।
তোমারও ।
কারও স্পর্শে এতটা আগুন এটা আমার জানা ছিল না ।
কিন্তু বেশিক্ষণ সুখের অনুভুতি মনে ছিল না ।
বুঝতে পারলাম তুমি আমি দুজনেই টপ ।
দুজন নির্বাক । কোন কথা বলছি না ।
আমিই প্রথম মুখ খুললাম, আমরা কি দুজন একে অন্যকে ছাড় দিতে পারি না !
তুমি আবারও স্পষ্ট ভাষায় বললে, না ।
আবারও দুজন নিরব ।
মনের সাথে যুদ্ধ চলল আমার ।
ঠিক করলাম আমার ভালবাসার জন্য আমি সব ছাড়ব ।
জীবনে প্রথমবারের জন্য বোটম রোল প্লে করার সিদ্ধান্ত নিলাম আমি ।
খুব কষ্ট হচ্ছিল আমার ।
শরীরের রক্ত যখন ফোঁটায় ফোঁটায় আমার গা বেয়ে পরছিল তখনও আমি কাদিনি । কারণ আমি তোমাকে ভালবাসি ।
সেদিন তোমাকে সর্বস্ব দিয়ে পেয়েছি এটাই আমার কাছে বিশ্ব জয়ের মত ছিল ।
সময় আর ব্যস্ততার ফাঁকে তোমার সাথে একটু সময় কাটাতে পারলে আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করতাম ।
কিভাবে যে আমাদের সম্পর্কের ১০ মাস কেটে গেল বুঝতে পারি নি ।
একটা সময় আমি বুঝতে পারলাম আমাদের মাঝে ৩য় ব্যক্তি আছে ।
আমি তোমাকে জিজ্ঞেস করলাম ।
তুমি সরাসরি অস্বীকার করলে ।
একটা সময় জানতে পারলাম তুমি অন্য কারও সাথে শরীরের খেলা খেল ।
একদিন তোমার শয্যা সঙ্গী ঐ ছেলেটাই আমাকে ফোন করে সব জানিয়ে দেয় ।

আমার কেন জানি নিজের কানকে বিশ্বাস হচ্ছিল না ।
ছুটে গেলাম তোমার কাছে ।
আমি আমার আর ঐ ছেলের কথাবার্তা সব রেকর্ড করে রেখেছিলাম ।
সেটা তোমায় শুনালাম । এবার তুমি আর অস্বীকার করতে পারলে না ।
তুমি নিসচুপ ।
এরপর থেকে তুমি বদলে যেতে শুরু করলে ।
আগের মত ফোন কর না ।
দেখাও হয় না আগের মত ।
একসময় আমার কল ধরাও বন্ধ করে দিলে তুমি ।
আমি ক্রমশ মানসিক রোগী হয়ে গেলাম ।
রাস্তায় একা একা হাঁটি । খাইনা ঠিকমত ।
রাতে ঘুমও আসত না ।
আমার এক বন্ধু জোর করে আমাকে একদিন ডাক্তারের কাছে নিয়ে যায় ।
ডাক্তার কি ওষুধ দিল জানি না ।
টানা ২১ দিন ঘুম এর সাথে কাটিয়েছি ঐ ওষুধ খেয়ে ।
আস্তে আস্তে নিজেকে চার দেয়ালের মাঝে আটকে ফেললাম আমি ।
যখন তোমার কথা খুব বেশি মনে হত ভাবতাম তুমি হয়ত একদিন আসবে।
সেই আগের মত ।
আমি শুধু তোমাকেই চাইতাম ।
জানি না । কেন ?
এভাবে একটা বছর কেটে গেল ।

চিন্তা করলাম । নিজেকে বদলে ফেলব ।
ক্রমাগত সেক্স করা শুরু করলাম ।
প্রতিদিন নতুন নতুন শরীর এর স্বাদ নিতে লাগলাম ।
আমি তখন শরীরের নেশায় মাতাল ।
এমনই এক সন্ধ্যায় তুমি আমায় ফোন দিলে ।
বললে, কোথায় তুমি ? কেমন আছ? আজ আমার সাথে দেখা করতে পারবে ?
এতদিন পরও তোমাকে না বলতে পারলাম না আমি ।
আমি দেখা করলাম । তোমার সাথে ।
আমি শুধু তোমার চোখের দিকে তাকিয়ে ছিলাম ।
আমার চোখে শুধু জল । টলটল করছিল ।
আবার ফিরে এলে তুমি আমার জীবনে ।
এর মাঝে অনেকের সাথে শরীর বিনিময় হয়েছে আমার ।
কিন্তু কাউকেই ভালবাসতে পারিনি আমি ।
অনেকেই আমাকে নিষ্ঠুর অমানুষ বলে গালাগালও দিয়েছে ভালো না বাসার অপরাধে ।
আমি নিজের সিদ্ধান্তে অটল ছিলাম । কারণ আমি জানতাম আমি তোমাকে ভালবাসি ।
আস্তে আস্তে নিজেকে গুছিয়ে নিলাম ।
তোমার ফিরে আসার পর আজ অবধি আমি তোমার সাথেই আছি ।
কত ঝড় তুফান গেল । কিন্তু তোমার হাত আমি আজও ছাড়ি নি ।
.এরপরও তুমি অনেকের প্রতি দুর্বল হয়েছ ।
অনেকে তোমায় কষ্টও দিয়েছে ।
কিন্তু আমি আজও তোমার পাশেই আছি ।
ঠিক ছায়ার মত ।
থাকব চিরদিন ।
কারণ আমি জানি আমি তোমাকে ভালবাসি ।
আর আমার ভালবাসাটা অদ্ভুত ভালবাসা !

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s